logo

Welcome To JBD IT


Student Registration

Client & Staf Login Area


Office use only Email Login Area


[email protected]
+88 01716905615
 

Office Application (certification)

কম্পিউটার শেখা কেন প্রয়োজন ?

 

দক্ষ মানবসম্পদ গড়ে তুলতে কম্পিউটার শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। কম্পিউটার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মানুষ নিজেকে দক্ষ করে তুলতে পারে এবং তার দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে আত্মনির্ভরশীল হয়ে ওঠে। শুধু যে কম্পিউটার সংক্রান্ত কাজ করতে হলেই কম্পিউটার ব্যবহার প্রয়োজন, তা নয়। যে কাজ কম্পিউটার নির্ভর নয়, সেখানেও কম্পিউটার জানা একটা অতিরিক্ত যোগ্যতা বলে বিবেচিত হয়। এক জন কর্মীর যদি কিবোর্ড কী করে চালাতে হয় জানা না থাকে তা হলে সামান্য মেল চেক করা বা তার জবাব দেওয়াই ঝকমারির পর্যায়ে চলে যায়। কম্পিউটার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে একদিকে যেমন নিজে স্বাবলম্বী হওয়া যায় ঠিক তেমনি অন্যদেরকেও স্বাবলম্বী হতে সহায়তা করা যায়। কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত দক্ষ কারিগর সৃষ্টির মাধ্যমে যেকোনো প্রতিষ্ঠানের উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধি করা সম্ভব সর্বোপরি একটি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখা সম্ভব।

 

Microsoft Office – মাইক্রোসফ্ট অফিস

Microsoft Office – মাইক্রোসফ্ট অফিস/MS Office – এমএস অফিস

 

মাইক্রোসফট অফিস হচ্ছে সমগ্র বিশ্বে বহুল ব্যবহৃত ও আলোচিত একটি ওয়ার্ড প্রসেসিং সফটওয়্যার। ১৯৮৮ সালের ১লা আগষ্ট লাস ভেগাসে বিল গেটস এটির প্রথম ঘোষনা দেন।

এখন পর্যন্ত মোট ৯টি ভার্সনে মাইক্রোসফট অফিস বাজারে এসেছে। এদের মধ্যে সর্বশেষ ভার্সনটি ২০১৬ যা ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বাজারে আসে।

২০১২ সালের ১০ জুলাই এই সফটওয়্যারটির বিশ্বব্যাপি ব্যবহারকারির সংখ্যা ছিল প্রায় ১০০ কোটি ।

বর্তমানে চালু মাইক্রোসফট অফিস ২০১৩ উইন্ডোজের জন্য মুক্ত করা হয় ২০১২ সালের ১১ অক্টোবর এবং ম্যাক ওএস এর জন্য মাইক্রোসফট অফিস ২০১১ মুক্ত করা হয় ২০১২ সালের ২৬ অক্টোবর । এটির মোবাইল সংস্করণ অফিস মোবাইল নামে উইন্ডোজ ফোন, আইওএস (আইফোন ও আইপ্যাড-এর জন্য আলাদা) এবং এনড্রয়েড ফোনের জন্য বিনামুল্যে চালু আছে। ওয়েব ভিত্তিক অফিস অনলাইন-ও চালু আছে ।

উইন্ডোজ এবং ম্যাক ওএস এর বর্তমান ডেস্কটপ সংস্করণের জন্য অফিস ২০১৬, যা ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৫ এবং ৯ই জুলাই, ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছে।

 

মাইক্রোসফট অফিস কেন শিখবো?

 

মাইক্রোসফট অফিস আপনি কেন শিখবেন এর উত্তর হচ্ছে আপনি কেন শিখবেন না? বর্তমান সময়ে অনেকেরই কম্পিউটার বা এনড্রয়েড ফোন থাকার কারণে কিছু প্রাইমারি পারে। কিন্তৃ প্রাইমারি কাজ আর অফিসিয়াল ও প্রফেশনাল কাজ কিন্তু এক নয়।

অনেকেই মুখে মুখে বলে আমিতো এইসব কাজ পারি। এরপর অফিসিয়াল বা কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজ করতে গলে আর হাত চলে না। তাই মাইক্রোসফট অফিস এর কাজগুলো ভালো মানের কোন প্রতিষ্ঠান থেকে দক্ষ ও অভিজ্ঞ কারো কাছ থেকে শিখতে হবে। এবং শুধু শিখলেই হবে না এর চর্চাও থাকতে হবে।

লেখালেকির কাজ করতে, চাকুরির জন্য আবেদন করতে, অনলাইন আয় করতে, ডাটা এন্ট্রি, প্রেজেন্টেশন এবং বিভিন্ন অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে আয় করতে মাইক্রোসফট অফিস শেখার কোন বিকল্প নেই । আরো অনেক উদাহরণ আছে যেগুলো বললে অনেক লম্বা হবে।তাই মাইক্রোসফট অফিস আপনাকে শিখতেই হবে। এর কোন বিকল্প নেই।

 

মাইক্রোসফট অফিস (Microsoft Office) প্রোগ্রামঃ

 

  1. ফান্ডামেন্টাল অফ কম্পিউটার
  2. উইন্ডোজ সেটআপ
  3. সফটওয়্যার ইনস্টলেশন
  4. এম.এস. ওয়ার্ড
  5. এম.এস. এক্সেল
  6. এম.এস. পাওয়ার পয়েন্ট
  7. এম.এস. এক্সেস
  8. ইন্টারনেট
  9. ইমেইল